jamdani

দেখবে যদি আপন চোখে যাও না কেন গোলাঘাটে!

সুকুমার রায় লিখেছিলেন ‘খেলার ছলে ষষ্ঠীচরণ হাতি লোফেন যখন তখন…’ অসমের ছোট্ট হর্ষিতা তো পালোয়ান ষষ্ঠীচরণকেও ছাপিয়ে গেছে! এবার একটু খুলে বলি। সত্যিই বন্ধুত্বের কোনও বয়স বা ভাষা হয় না, এবার তা প্রমাণ করল ৩ বছরের এক খুদে। নাম হর্ষিতা বোরা। তার বন্ধু ৫৪ বছরের এক হস্তিনী, নাম হল বিনু

বিনুর লালনপালন করেন হর্ষিতার ঠাকুরদা, যিনি পেশায় নাগাল্যান্ডের একজন কাঠ ব্যবসায়ী। উচ্চ অসমের গোলাঘাট শহরের ১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা বোরা পরিবারের সঙ্গে দীর্ঘদিন কাটিয়ে এসেছে বিনু।

বিনু হাতির ছানা টাস্করকে খাওয়ানো শুধু নয়, হর্ষিতার দিন কাটে তার সঙ্গে খেলে, মজা করে। সন্তানের প্রতি এমন সহজাত ভালবাসায়, বিনু কেবল হর্ষিতার আদেশই পালন করে না বরং তার যুবতী মাস্টারকে নিজের পিঠে বসিয়ে সারা গ্রাম ঘুরে বেড়ায়। সম্প্রতি হর্ষিতা এবং বিনুর একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। যেখানে হর্ষিতা দুধ পান করতে বিনুর তলপেটের কাছে পৌঁছে যায়।

হর্ষিতার বাবা লোহিত বোরার কথায়, তার বাবা বিনুকে নাগাল্যান্ডে পেয়েছিলেন। তিনি সেখানে কাঠের কাজ করতেন। তবে সুপ্রিম কোর্ট যখন গাছ কাটা নিষিদ্ধ করল, নব্বই দশকের গোড়ার দিকে খনোমা থেকে তারা বিনুকে ফিরিয়ে আনে। পরে বিনু একবার স্ত্রী ও একবার স্ত্রী-পুরুষ উভয়ই শাবকেরই জন্ম দিয়েছিল। তবে শাবকগুলো চুরি হয়ে যায়। পরবর্তীকালে তাদের অরুণাচল প্রদেশের কাছে সাদিয়া থেকে উদ্ধার করা হয়। আর্থিক সীমাবদ্ধতার কারণে তিনি পুরুষ শাবকটিকে বিক্রি করে দিয়েছেন। তবে বিনু হর্ষিতার সঙ্গেও একটি বিশেষ বন্ধন ভাগ করে নিয়েছে। আশ্চর্যজনকভাবে ছোট্ট হর্ষিতা বিশাল ওই প্রাণীকে মোটেও ভয় করে না। বরং তাদের দু’জনকে খেলা করতে দেখা যায়। বিনু তার সমস্ত আদেশ মান্য করে।

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes