jamdani

মশলাদার পমফ্রেট (তৃতীয় পর্ব)

বেড়াল বলে মাছ খাবো না? এককালে প্রবাদটি মার্জারকুলের সঙ্গে সঙ্গে বাঙালিদের ক্ষেত্রেও সমান ভাবে খাটত। কিন্তু এখন চিত্রটা একেবারে উল্টো।’ইস কী আঁশটে গন্ধ! না, না মাছ খাব না’ – কমবয়সীদের মুখেই এমন বুলি বেশি শোনা যায় প্রায় ঘরে ঘরেই। তবুও কি নিস্তার আছে বঙ্গবাসীর! তাদের কাছে মাছ কি শুধু খাওয়ার পদ? মোটেই না! পুজো আচ্চা থেকে শুরু করে বিয়ে-থা যেকোনও শুভ কাজের সূচনাই মাছ ছাড়া অসম্পূর্ণ। এছাড়াও ডায়েটিশিয়ানদের মতে শরীর সুস্থ রাখতে প্রতিদিন ডায়েটচার্টে রাখা উচিত মাছ। কারণ এতে আছে প্রোটিন, গুড ফ্যাট, ওমেগা থ্রি-র প্রয়োজনীয় জোগান, যা আমাদের শরীরের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। তাই অদ্বিতীয়া আপনাদের জন্য না না প্রদেশ থেকে, এমনকী দেশের গণ্ডি টপকেও খুঁজে এনেছে মাছের নানান পদ। সনাতনী কালিয়া, সরষের ঝাল থেকে বেরিয়ে চলুন মাছ নিয়ে করা যাক একটু এক্সপেরিমেন্ট। দেখুন তো মুখে রোচে কি না!

 

উপকরণঃ

  • মাঝারি মাপের পমফ্রেট – ২৫০ গ্রাম।
  • পেঁয়াজ স্লাইজ করা – ৫০ গ্রাম।
  • ধনে গুঁড়ো – ১০ গ্রাম।
  • হলুদ গুঁড়ো – ৫০ গ্রাম।
  • লাল লঙ্কা গুঁড়ো – ২৫ গ্রাম।
  • পাতিলেবুর রস – ১০ মিলি।
  • আদা-রসুন বাটা – ৫০ গ্রাম।
  • রিফাইনড অয়েল – ১২৫ মিলি।
  • লবন – স্বাদমতো।
  • কাঁচা লঙ্কা (সরু সরু করে কুচনো)- ২ টি।
  • সরষের তেল – ৫০ মিলি।

প্রণালীঃ

  • পমফ্রেট মাছ ভাল করে ধুয়ে মাঝ বরাবর একটু চিরে দিন। হলুদ, লাল লঙ্কা গুঁড়ো, নুন, পাতিলেবুর রস, আদা-রসুন বাটা দিয়ে ম্যারিনেট করে রাখুন।
  • কড়াইতে তেল গরম করে মাছ হালকা করে ভাজে নিন।
  • তেল ছেঁকে ভাজা মাছ একটি পাত্রে তুলে রাখুন।
  • এবার মাছ ভাজার তেলে পেঁয়াজ ভেজে নিন। অল্প ধনে গুঁড়ো দিয়ে নাড়তে থাকুন।
  • সামান্য জল দিন এবং তা ফুটতে শুরু করলে ভেজে রাখা মাছ কড়াইতে ছাড়ুন।
  • কাঁচা লঙ্কা ভেঙে ছড়িয়ে দিন।
  • আরও কিছুক্ষণ রান্না হতে দিন। ভাতের সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন।

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes