jamdani

হেঁশেল সামলাতে নব-বধূদের জন্য বিশেষ কিছু টিপস

রান্নাঘর নিয়ে শাশুড়ি-বৌমার মন কষাকষি আজন্মকাল থেকেই চলে আসছে। নতুন প্রজন্মের বৌমাদের উন্নত মানসিকতা অনেকেরই মন মতো হয় না। তাই হেঁশেলের কোন কাজটা কীভাবে করতে হবে সেই তর্কে না গিয়ে, নিজের গুণে কাজটা ভালোভাবে সম্পন্ন করাই বুদ্ধিমানের হবে। তাই মতান্তর এড়িয়ে ছোট্ট ছোট্ট কাজেই করুন বাজিমাত। অদ্বিতীয়ার পক্ষ থেকে রইল রান্নাঘরের ম্যাজিক ক্রিয়েশনের কিছু টিপস, যা মুখ বন্ধ করবে শাশুড়িকুলের

যেমন, শাশুড়ি কুমড়োর ছেঁচকি কিংবা ছক্কা রান্না করে বাহবা কুড়চ্ছেন। সেক্ষেত্রে নতুন বৌমার কাজটা হোক ছোট্ট কিন্তু অব্যর্থ। আপনি শুধু কুমড়ো কাটার সময় ওর বীজগুলো সরিয়ে রাখুন আলাদা করে। শুকিয়ে রেখে দিন। পরে শাক বা অন্য রান্নায় ছড়িয়ে দিন। বাদামের মতো খেতে লাগবে।

সয়াবিনের দানা রাতে জলে ভিজিয়ে রেখে পরের দিন বেটে দুধ কিংবা শরবত তৈরি করেন অনেকেই। ছিবড়েগুলো কিন্তু ফেলবেন না। সেগুলো জিরে, আদা বাটা, কাঁচা লঙ্কা, হলুদ ও লবণ মিশিয়ে পোকরা তৈরি করুন। ডেস্টিনেশন? ওই শাশুড়িদের জমায়েত। ক্রিস্পি, ক্রাঞ্চি সুস্বাদু স্ন্যাক্সে মুখ বন্ধ, নিন্দেও বন্ধ সকলের।

সয়াবিন দিয়ে তরকারি করতে হলে তা কিছুক্ষণ জলে ভিজিয়ে রাখুন। তারপর তুলে অল্প রসুন, লবণ, জিরে ভাজা আর সুজি গুঁড়ো মিশিয়ে মিক্সিতে ভালো করে পেস্ট বানিয়ে নিন। এরপর বড়ার মতো ভেজে নিয়ে, তারপরে করুন তরকারি। দারুণ লাগবে খেতে।

আলু অনেকদিন রাখলে অনেক সময় একটু নরম হয়ে যায়। শাশুড়িকে তাক লাগিয়ে দিন আপনার গিন্নিপনায়। আলু মিক্সিতে পেস্ট করে, পেঁয়াজ, রসুন, লঙ্কা কুচিয়ে মিশিয়ে নিন। ছাঁকা তেলে বড়া ভেজে ফেলুন চটপট।

বাড়িতে দইবড়া তৈরি করে একদিন উইক-এন্ড জমিয়ে দিন। দইবড়া তৈরি করার সময় ডাল বাটায় দু’চার চামচ দই ফেটিয়ে নিন। এতে বড়া অনেক বেশি নরম হবে। আর ভাজার সময় বেশি তেলও টানবে না। বাড়ির প্রত্যেকের স্বাস্থ্য সম্পর্কে আপনি যে ভীষণ সচেতন, এই বার্তাটি সকলকে জানাতে ভুলবেন না।

বৌভাতের রিসেপশনে আমন্ত্রিতদের জন্য যে মিষ্টি এসেছিল, তার রস বেঁচে গিয়েছে অনেকটা। ওগুলো ফেলতে দেবেন না। ওই রসে ময়দা দিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরি করুন। ননস্টিক ফ্রাইং প্যানে একটু তেল গরম করুন। এরপর অল্প অল্প করে মিশ্রণটি ঢেলে, ভেজে নিলেই তৈরি সুন্দর প্যান কেক।

শীতে পালংশাক প্রত্যেকটি বাড়িতেই আসে। পালং ভালোভাবে ধোওয়ার পর সেদ্ধ করুন। তবে সেই সেদ্ধ করা জল কখনও ফেলবেন না। লুচি তৈরি করার সময় ময়দার সঙ্গে ওই পালং শাক সেদ্ধ জল দিয়ে মাখুন। নতুন ধরণের ওই সবুজ লুচি সকলেরই মন টানবে। পাশাপাশি লুচি হবে স্বাস্থ্যকর এবং সুস্বাদুও।

 

 

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes