jamdani

অফিস ট্যুর? প্যাকিং চেকলিস্ট তৈরি তো

বেড়াতে যাওয়ার সময় মনের মধ্যে একটা আনন্দ কাজ করে। তাই তখন অত সমস্যা মনের মধ্যে দাগ কাটে না। কিন্তু যারা চাকরি করেন তাদের মাঝে মাঝে বিজনেস ট্রিপেও যেতে হয়। আর সেখানে হাবিজাবি জিনিস নেওয়ার কোনও জায়গা নেই। কোথাও যাওয়া মানেই একগুচ্ছ প্যাকিং। আর প্যাকিং মানেই ঝামেলা। এটা ,নাও সেটা নাও। সবকিছু হয়ে গেলে সুটকেসের চেনটা আটকালে, ওমনি মনে হল এই যাহ! একটা দরকারি জিনিস নেওয়া হয়নি।

বিজনেস ট্রিপের সময় বুঝেশুনে গোছগাছ করতে হবে। বেশিও না আবার কমও না, এভাবেই হবে প্যাকিং। তাহলে আর দেরি কেন? মিলিয়ে নিন বিজনেস ট্রিপের চেকলিস্ট

পোশাক আশাক

টপ: এটা নেওয়ার কথাই সবার আগে মাথায় আসে। তাই জামাকাপড় কী কী নেবেন, আগে থেকে লিস্ট করে নেওয়া ভালো। প্রথমেই ঠিক করে নিন ফ্লাইট/ ট্রেনে কী পরে যাবেন। ৪টে মতো টপ নেবেন। বেশি রংচঙে নয়। রয়্যাল ব্লু, আইভরি, ব্ল্যাক ও হোয়াইট হল অফিস কালার। কটনের টপ হলে সেটা ইস্ত্রি করে নেবেন এবং সুটকেসের একদম তলায় রাখবেন। অফিসের কাজে স্ট্রাইপ শার্টও পরা যায়। সাদা টপ নিয়ে একটু সাবধানে থাকবেন কারণ সাদা জামায় দাগ লাগার আশঙ্কা বেশি থাকে।

বটমওয়্যার: এবার ট্রাউজার বেছে নেবেন। কালো ট্রাউজার সবচেয়ে ভালো। তার সঙ্গে সামার ফ্রেন্ডলি প্যান্টস এবং ট্র্যাভেল প্যান্টসও বেছে নিতে পারেন। যদি কোন টপের সঙ্গে কোন প্যান্ট পরবেন সেটা আগে থেকে ঠিক করা থাকে তাহলে সুটকেসে সেই অর্ডারেই রাখবেন। দুটোর বেশি প্যান্ট নিয়ে ব্যাগ ভারী করবেন না। কটন ট্রাউজার ছাড়াও অবশ্যই সঙ্গে নেবেন একটা জিন্স।

পার্টি আছে কি? যদি কাজের সঙ্গে কোনও পার্টিতেও যাওয়ার কথা থাকে তাহলে টপের সঙ্গে মানানসই স্কার্ট নেবেন। তবে স্কার্ট-এর ঝুল যেন বেশি ছোট না হয়। মনে রাখবেন এটা আপনার অফিসের সম্মানের প্রশ্ন।

রাতপোশাক: আপনি বাড়িতে রাতে কী পরে ঘুমোন, সেটা এই মুহূর্তে জরুরি নয়। আপনি যে হোটেলে থাকছেন, সেই ঘরে আপনার অন্য কোনও সহকর্মীও থাকতে পারেন। সুতরাং রাতপোশাক নেওয়ার সময়ে একটু সচেতন হতে হবে। পাজামা-টপ বা ক্যাপ্রি নিতে পারেন। নাইটি বা বেবিডল জাতীয় পোশাক নেবেন না।

আবহাওয়া মাথায় রেখে প্যাকিং

বিজনেস ট্রিপে ঠিক যেখানে যাচ্ছেন, সেখানকার আবহাওয়া কীরকম সেটা জানা খুব দরকার। যদি এমন কোনও জায়গায় যাচ্ছেন যেখানে রাতের দিকে বা সূর্যাস্তের পর হাল্কা ঠান্ডা থাকে, তাহলে একটা হাল্কা জ্যাকেট বা ব্লেজার নিতে পারেন। উষ্ণ কোনও জায়গায় গেলে জ্যাকেট নেওয়ার প্রয়োজন নেই।

কেমন জুতো নেবেন

যে জুতো পরে যাবেন, সেটা যদি সব পোশাকের সঙ্গে মানানসই হয়, তাহলে অন্য জুতো নেওয়ার প্রয়োজন সচরাচর পড়ে না। কিন্তু খেয়াল রাখবেন সেই জুতো যেন সুতির কাপড় বা টিস্যু দিয়ে পরিষ্কার করা যায়। নাহলে সেটা নোংরা দেখাবে। একজোড়া বাথরুম স্লিপার অবশ্যই নেবেন।

আরও যা যা অবশ্যই নেবেন

স্যানিটারি ন্যাপকিন, সেফটিপিন, বাড়তি হ্যান্ডব্যাগ/পার্স, মেকআপ কিট, মেডিসিন কিট, তিন-চারটি মাস্ক, স্যানিটাইজার/ স্প্রে, ল্যাপটপ/ ফোনের চার্জ দেওয়ার যন্ত্র, জরুরি কাগজপত্রের ফাইল, ক্রেডিট/ ডেবিট কার্ড ইত্যাদি।

 

Trending


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes