jamdani

পাথরের মেঝেতে ঝকঝকে হোক বাড়ি

ন্যাচরাল স্টোন সেই অমূল্য সম্পদ, যার ছোঁয়ায় আপনার বাড়ি, ফ্ল্যাট বা অফিস হয়ে ওঠে অভিজাত এবং যা বছরের পর বছর হয়ে উঠবে আপনার বিশ্বস্ত সঙ্গী। সামান্য যত্নেই পাবেন এক ঝকঝকে-তকতকে লুক। মার্বেল, গ্র্যানাইট, লাইম স্টোন, স্যান্ড স্টোন এইসবই প্রাকৃতিক পাথরের উজ্জ্বল উদাহরণ। নকশাদার টাইলসের বহুল ব্যবহার প্রচলিত হলেও সৌন্দর্য ও আভিজাত্যে আজও এরাই সবসেরা। তাইতো প্রাচীন হাভেলি বা প্রাসাদগুলোতে বাদশা ও রাজা-মহারাজারা এই ধরণের পাথর ছাড়া অন্য কিছু ব্যবহারের কথা ভাবতেই পারতেন না।

চিনে নিন তাকে

প্রাকৃতিক পাথরকে উপাদানের ভিত্তিতে মূলত ২ টি ভাগে করা যায়।

১) সিলিসিয়াস স্টোন এবং

২) ক্যালক্যারিয়াস স্টোন।

উপাদান সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকা জরুরি এই কারণে যে যত্নের অনেকখানিই নির্ভর করে এর ওপর। প্রথমটির প্রধান উপাদান সিলিকা বা পার্টিকলসের মতো কোয়ার্টজ। অন্যদিকে দ্বিতীয়টির প্রধান উপাদান ক্যালশিয়াম কার্বোনেট। প্রাকৃতিক পাথর কেনার আগে তার ধরন সম্পর্কে নিশ্চিত হয় নিন। পথরটি কি ফ্ল্যাট? কী ধরনের ফিনিশিং করা হয়েছে, ওয়্যাক্স, অ্যাক্রিলিক না এনহ্যান্সারস? মার্বেলে কোনও দাগ আছে কিনা। দাগের প্রাকৃতি কীরকম? কোথায় ব্যবহারের জন্য কিনছেন এটাও বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। তাছাড়া মাথায় রাখুন আপনার বাড়িতে ব্যবহার করা পাথরের জল শোষণের ক্ষমতা কতটা?

এছাড়া প্রাকৃতিক পাথরের ফিনিশিং সম্পর্কেও নিশ্চিত হয়ে নিন। ৩ ধরনের ফিনিশিং চোখে পড়ে। পলিশড, হনড ও ফ্লেমড।

প্রাকৃতিক পাথর থেকে দাগ তোলার উপায়ঃ

পাথরে কোনও দাগ ধরলে তার ধরন বুঝে নিন। সেটি অয়েল বেসড, অর্গ্যানিক, ইনঅর্গ্যানিক, বায়োলজিক্যাল, পেন্ট নাকি ইঙ্ক স্টেইন। কারণ দাগের প্রাকৃতি অনুযায়ী আপনাকে দাগ তোলার ব্যবস্থা করতে হবে। এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ সর্বদাই গ্রহণযোগ্য।

যত্নের আরও কিছুর পরামর্শঃ

প্রাকৃতিক পাথরে লেগে থাকা যে কোনও ধুলো-ময়লা তৎক্ষণাৎ তুলে ফেলুন।

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes