jamdani

জল থৈ থৈ শহর! চোখ রাঙাচ্ছে বজ্র-বিদ্যুৎ সহ ভারী বৃষ্টি

গতকাল থেকে কলকাতা ও দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে মুশলধারে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। সকাল থেকেই ছিল ধূসর মেঘাচ্ছন্ন আকাশ! রাতে বজ্র-বিদ্যুৎ সহ একনাগাড়ে চলেছে বৃষ্টি। ফল স্বরূপ কলকাতার অলিগলি জলে হাবুডুবু অবস্থা। বেশ কিছু জায়গায় জল জমে যাওয়ায় বন্ধ হয়েছে যান চলাচল ব্যবস্থাও। এমন দৃশ্য কিন্তু এবছর বর্ষাতেও মানুষ দেখেনি। বরং রোদ ঝলমলে কেটেছে বর্ষাকাল। এরমধ্যে জানা গিয়েছে, চলতি মাসেই তাণ্ডব চালাতে পারে আরও ৩টি নিম্নচাপ, যার জেরে ধেয়ে আসতে পারে ঘূর্ণিঝড়ও।

এবার পুজো কি তবে জলবন্দি হয়েই কাটবে! ওয়েদার আল্টিমার নামক একটি বেসরকারি আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, সেপ্টেম্বর মাসে মৌসুমি বায়ুর গতিবিধি বঙ্গোপসাগরে ক্রমশ বাড়বে। যার ফলে বঙ্গোপসাগরের বুকে সৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা ছিল ৩–৫টি ঘূর্ণাবর্তের। এর ১টির জেরে এই বৃষ্টিপাত। এছাড়াও আরও ২টি ঘূর্ণাবর্ত পরিণত হতে পারে নিম্নচাপ বা গভীর নিম্নচাপে! যার মধ্যে ১টি নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেওয়ার সম্ভাবনা প্রকট

ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা-এর কথায়, সেপ্টেম্বরের শেষ দুই সপ্তাহ নাগাদ তৈরি হতে পারে এই ঘূর্ণিঝড়। তবে এখনই খোলসা করে বলা যাচ্ছে না তার গতিমুখ সম্পর্কে। তিনি আরও জানান- সেপ্টেম্বর মাস জুড়ে অল্পবিস্তর স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে পশ্চিমঙ্গে। এমনকি পুজোর সময়েও বৃষ্টি হতে পারে

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী- বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত এই গভীর নিম্নচাপ দুর্বল হলেও তার জেরে দক্ষিণবঙ্গে নাগাড়ে বৃষ্টি চলছেআজ মঙ্গলবার, এমনকি বুধবারেও বজ্র-বিদ্যুৎ সহ ভারী বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে কলকাতা ও দক্ষিণবঙ্গে। এছাড়াও উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর এবং নদিয়ায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

ভারী বৃষ্টি হতে পারে পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, মুর্শিদাবাদ এবং দুই বর্ধমানেও। উপকূলবর্তী এলাকায় বৃষ্টির পাশাপাশি ঝোড়ো হাওয়ার দাপট থাকতে পারে। এ যাবত আগামী বুধবার পর্যন্ত মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে নামতে নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes