jamdani

ভটভটিতে ভেটিয়া  

প্ল্যান ছিল ছোট্ট অথচ সুন্দর একটা ট্রিপ। সেই মতো খড়গপুর স্টেশনে অপেক্ষা করছিল বন্ধু। আমি আসতেই দু’জনে বাইকে চেপে চললাম পুরী গেটের দিকে। এরপর আইআইটি খড়গপুরের মূল দ্বারকে সামনে রেখে ডান-দিকে খড়গপুর কেশিয়ারি রাজ্যসড়ক ধরে এগিয়ে গেলাম। ওই পথ ধরেই সালুয়া পেরনোর পর চামরুসাই থেকে বাঁ-দিকে বেঁকে লাল মাটির পথ। পৌঁছালাম ভেটিয়া।

পশ্চিম মেদিনীপুরের লাল মাটির নিরিবিলি একটা গ্রাম। যেন সবুজ ক্যানভাসে আঁকা কোনও ছবি। নাম ভেটিয়া। ৬৩৮.১১ হেক্টর জমি জুড়ে গ্রামটা অবস্থিত। জনসংখ্যা সাকুল্যে ২ হাজার ১৭৪ জন। মোটে ৫৫৮টা ঘর রয়েছে সেখানে। কাজেই বুঝতে পারছেন কতটা ফাঁকা জায়গাটা। এখানকার সবচেয়ে আকর্ষণের বিষয় হল ভেটিয়া ঝর্ণা। হ্যাঁ ঝর্ণা। এই গ্রামেই রয়েছে আস্ত একটা প্রাকৃতিক ঝর্ণা! এখান থেকে বিনপুর, চন্দ্রকোণা, দাঁতন বেশ কাছে।

ভেটিয়া ধর্ণা খুব একটা বড়সড় নয়। তবে পরিচিতির দিক থেকে সকলের কাছেই অজানা। সেজন্য আলাদা করে কোনও নামকরণও হয়নি। আপনি যদি একদিনের শর্ট ট্রিপের প্ল্যান করে থাকেন তাহলে অবশ্যই ঘুরে আসুন। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত প্রকৃতির বুকে হেসে-খেলে কেটে যাবে। যাওয়ার জন্য দু’চাকা বা চার চাকা থাকলে সবচেয়ে সুবিধে হবে।

দেখার মধ্যে ঝর্ণার পাশেই রয়েছে ঝিল। নীল ডানার মাছরাঙাও দেখতে পাবেন। সঙ্গে দেখবেন, আদি পদ্ধতিতে জেলেদের মাছ ধরা। বর্ষায় এই রূপ হয়ে ওঠে আরও অনন্য। বিকেলে ঝর্ণার ধারে বসেই দেখতে পাবেন সূর্যাস্ত। এখানে খুব একটা লোকজন আসে না বলে আশেপাশে তেমন দোকানপাটও নেই। তাই ভেটিয়া ঝর্ণা দেখতে এলে অবশ্যই জল এবং খাবার সঙ্গে আনবেন। তাহলে আর দেরি কেন!

 

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes