jamdani

নির্মলার ঘোষণায় বাজরা বছর

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন গত মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় বাজেট ২০২২ পেশ করেছেন। যেখানে তিনি ২০২২ থেকে ২০২৩-কে আন্তর্জাতিক বাজরা বছর হিসাবে ঘোষণা করেছেন। তাঁর কথায়, চাষের পর বাজরার মূল্য সংযোজন, অভ্যন্তরীণ ব্যবহার বাড়ানো এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে এই ফসলের ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য সরকারি সহায়তা প্রদান করা হবে। এর আগে বাজরার উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ২০১৮-কে জাতীয় বাজরা বছর হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছিল। এই ধরণের পুষ্টিগুণ সম্পন্ন শস্যকে ইন্টিগ্রেটিভ নিউট্রিশনিস্ট এবং হলিস্টিক লাইফ কোচ কারিশমা শাহ, ‘ভবিষ্যতের সুপারফুড হিসাবে অভিহিত করে, বাজরা ব্যবহারের পক্ষে কথা বলেছেন। যদিও সেটা কখনওই ধানকে বাদ দিয়ে নয়। খাদ্যাভাসে একটা সংযোজন মাত্র।

তার কথায়, বাজরা হল ভবিষ্যতের সুপারফুড। ভারতীয় হিসেবে এটা আমাদের ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতি। আমাদের জন্য বাজরা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, কারণ আমাদের দেশে এমন সব ফসল ফলে যেগুলি খুব সহজে জন্মায় এবং সাশ্রয়ী মূল্যে পাওয়া যায়। এই সকল ফসলগুলোকে আমাদের নিত্য খাবারের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে হবে

তিনি আরও বলেন, গম এবং কৃত্রিমভাবে তৈরি ফসলে গ্লুটেন উপাদানের কারণে অনেকেই গ্লুটেন অসহিষ্ণুতায় ভোগেন। তাই মানুষ এখন গম খাওয়া বিরত রেখে বাজরার দিকে ঝুঁকছেআর নিয়মিত বাজরা খাওয়া আমাদের শরীর-স্বাস্থ্যের জন্যেও ভীষণ উপকারী। বিশেষ করে এই সময়ে রোগ রুখতে সবার আগে দরকার প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো, আর বাজরা সেখানেই করবে বাজিমাত।

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes