jamdani

ফ্যাটি লিভার

দৈনন্দিন ব্যস্ত জীবনে খাওয়া-দাওয়ার অনিয়ম। লাগামহীন জীবনযাত্রা। অধিক মাত্রায় ফাস্ট ফুড ফ্যাটি লিভারের প্রধান কারণ। আপনার অজান্তেই বাসা বাঁধে এই রোগ। কী করে ফ্যাটি লিভারকে গুডবাই জানিয়ে সুস্থ থাকা যাবে তারই হদিশ অদ্বিতীয়া ম্যগাজিনকে দিলেন ডঃ দেবাশিস দত্ত।

ফ্যাটি লিভার বলতে ঠিক কী বোঝায়?

ফ্যাটি মানেই ‘ফ্যাট’ অর্থাৎ চর্বি। লিভারে চর্বি আসলেই তাকে বলে ফ্যাটি লিভার।

ফ্যাটি লিভারের লক্ষণগুলি কী কী?

আপাতদৃষ্টিতে ফ্যাটি লিভারের লক্ষণ বোঝা সম্ভব নয়। তবে ওভার ওয়েট, হাই ব্লাড সুগার, কোলেস্টেরল শরীরে এই গুলি দানা বাঁধলে এবং প্রপার এক্সসাইজ না করলে তা ফ্যাটি লিভারকে ডেকে আনে। CT SCAN এবং MRI করতে হয় অ্যাবডোমেন-এ (abdomen)।

সাধারণ মানুষের ধারণা অনিয়মিত এবং তৈলাক্ত খাবার খেলে লিভার হয়। এটি কি সঠিক?

মাত্রাতিরিক্ত ওয়েলি খাবার অবশ্যই ফ্যাটি লিভারকে আমন্ত্রণ জানায় এবং অ্যানিমাল ফ্যাটও একইভাবে ফ্যাটি লিভারের জন্য দায়ী।

মদ্যপানের সঙ্গে নাকি ফ্যাটি লিভারের নিবিড় সম্পর্ক। এটা কি ঠিক?

অধিক অ্যালকোহল সেবন অবশ্যই  ফ্যাটি লিভারের একটি অন্যতম কারণ। তবে এক্ষেত্রে একটা বিষয় বলার, যা হল মদ্যপান না করলেও এই রোগর সম্ভবনা থাকে। সেক্ষেত্রে তাকে বলে নন-অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার। ডাক্তারি পরিভাষায় যাকে বলে NASH, অর্থাৎনন-অ্যালকোহলিক স্ট্যাটো হেপাটাইটিস।

রোগটি কি বংশগত?

বংশগত যে সরাসরি তা ঠিক বলা যায় না। তবে যে সব রোগ শরীরে থাকলে ফ্যাটি লিভারের সম্ভাবনা থাকে, যেমন হাই ব্লাড সুগার, হাই ব্লাড প্রেশার এইগুলি সাধারণত বংশগত হওয়ার কারণে ফ্যাটি লিভারকে পরোক্ষভাবে বংশগত বলা যেতে পারে।

 

 

 

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes