jamdani

যোগাসনে Face চর্চা

ফেস যোগা ত্বকে কোলাজেন বৃদ্ধি করে, ত্বককে করে তোলে মসৃণ। এছাড়াও ত্বককে টানটান করে এবং রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়।

পেঁচার মতো চোখঃ

আপনার থাম্ব এবং তর্জনী দিয়ে একটি বড় ‘সি’ আকৃতি তৈরি করুন। তর্জনী ভ্রু-এর উপর রাখুন। থাম্বগুলি আপনার গালে রাখুন সমান্তরালভাবে। চোখ এবং ভ্রু প্রশস্ত করুন আঙুল দিয়ে। এভাবে দু’সেকেন্ড ধরে থাকুন। এটি পুনরাবৃত্তি করতে থাকুন। এই ব্যায়ামটি কপালের বলিরেখা দূর করে।

বৃত্তাকার চোখঃ

যেখান থেকে আইব্রো শুরু হয়, সেখানে প্রথমে মিডিল ফিঙ্গার রাখুন। উপরের ভ্রুর অংশে আলতো চাপ দিন। এরপর চোখের নীচে আপনার চিক-বোন দুটির ওপর আলতো চাপ দিন। এভাবে চোখের নীচ অবধি করতে থাকুন। একইভাবে বিপরীত দিকেও পুনরাবৃত্তি করুন। চোখ কোঁচকানো কমাতে, পেশী শিথিল করতে এই ব্যায়াম দুর্দান্ত।

রাজহাঁস গ্রীবাঃ

আপনার চিবুকের দিকে সমানভাবে চোখ রাখুন। এভাবে একবার ডানদিকে মাথা ঘোরাতে ঘোরাতে ডান কাঁধের দিকে নিয়ে যান হালকা করে। এবার মাথা পেছনের দিকে কাত করে রাখুন ছয় থেকে আট সেকেন্ড। এরপর আবার আগের অবস্থানে ফিরে আসুন। এভাবে বামদিকে ঘুরুন। এটি তিনবার পর্যন্ত পুনরাবৃত্তি করুন। এই ব্যায়াম ঘাড়ের পেশিগুলোকে উত্তলন করে, রিঙ্কলস দূর করে। এছাড়াও মুখ ও গলার বলিরেখাও ঠিক করে।

জিরাফ গ্রীবাঃ

সোজাভাবে সামনে তাকান, আঙুলের টিপ রাখুন গলায়। এবার আপনার মাথাটি পিছনে নিয়ে যান। এভাবে থাকার সময় ত্বকে হালকাভাবে স্ট্রোক করুন। আপনার মাথাটি নামিয়ে আনুন এবং আরও দু’বার এটি করুন। এবার আপনার নীচের ঠোঁটটিকে যতটা সম্ভব ঝাঁকান। আঙুল রাখুন কলার-বোনের উপর এবং চিবুকটিকে উপরের দিকে তুলুন। এবার গভীর নিঃশ্বাস নিয়ে খানিকক্ষণ চেপে রাখুন। এটি ঘাড়ের টান দূর করে।

পাফ আপঃ

মুখের মধ্যে কিছুটা হাওয়া ভরে নিন। এবার এক গালে হালকা চাপ দিন। হাওয়া এক গাল থেকে আরেক গালে স্থানান্তরিত করুন। এরপর ছোট্ট ‘০’ আকারে ঠোঁট খুলে হাওয়া ছেড়ে দিন। আপনার গাল টানটান রাখতে এই ব্যায়ামটি ৩-৪ বার করুন।

ফিশ ফেসঃ

আপনার ঠোঁট মুখের ভেতরের দিকে টেনে মাছের মতো মুখ করুন। এই রকম ৫-৬ বার করুন। এতে ঠোঁট ঝুলে পরা থেকে রক্ষা পাবে।

 

 

 

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes