jamdani

ব্রেক আপ (পর্ব -৪)

রেহান কৌশিক

বাড়ি ফিরে ভালাে করে স্নান করল জিনাত। নেশার সামান্য রেশ আছে কিন্তু বেশ আরাম লাগছে। ভাবল, সে কি শায়নকে হার্ট করে ফেলল! কিছুই বলত না শায়ন যদি তার কেরিয়ারকে অমন নেগেটিভ জায়গা থেকে না দেখত। কীসের প্রেমিক। যদি তার স্বপ্ন তার কাজ তার দাঁড়াবার প্রচেষ্টাকে সাপাের্ট নাই করল! বিছানায় গা এলিয়ে দেয় জিনাত। দেখল মেসেঞ্জারে কী একটা লিংক পাঠিয়েছে আলাদিন। ক্লিক করতেই ইউটিউবে গান বাজতে থাকে- মােহব্বত বরসা দেনা তু, শাওন আয়া হ্যায়। মিস্টি রােমান্টিক গান। জিনাতের মন ভালাে হয়ে গেল। একটু আগে মনে যে চিন্তা নড়াচড়া করছিল তা উধাও হয়ে গেল। গান শেষ হওয়ার পর মেসেঞ্জারে চোখ পড়তেই দেখল আলাদিন মেসেজ করেছে, ‘কেমন লাগল? ‘নাইস রিয়েলি নাইস। আমি আগে এই গানটা শুনিনি। লিরিক টিউন আর ভয়েসের ব্রিলিয়ান্ট কম্বিনেশন। ‘পার্পেল কালারে তােমাকে দারুণ লাগে। ‘মানে! “আজ তাে ওই রংয়ের ড্রেস পরেছিলে। ‘হা, কিন্তু তুমি জানলে কী করে? “ আরে বাবা, তােমার ওয়ালে তােমার কোন এক ফ্রেন্ড একটা ভিডিও আপলােড করেছে। সেখানে দেখলাম তুমি মাইক্রোফোন হাতে গ্যাদারিংয়ে আসাম নিয়ে বলছ। ‘ও আচ্ছা, বুঝেছি। হ্যাঁ আমাদের আর্টিস্ট ফোরামের বিক্ষোভ ছিল আসাম ইস্যুতে। ‘খুব ফালতু ব্যাপার। খুব অমানবিক। এখানে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পও ম্যাক্সিকান বর্ডারে পাঁচিল তুলছে মাইগ্রেশন আটকানাের জন্য। খুব হইচই হচ্ছে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড। এখানের বায়ােডাইভাটির ওপরেও এটা একটা গ্রেট। আমরা বিরােধিতা করছি।‘ ‘উচিতও তাই। পৃথিবী কি কিছু রাষ্ট্রনেতার বাবার জায়গির নাকি যে যা খুশি তাই করতে পারে! ঠিক বলেছ। যেখানে সেখানে পাঁচিল, যাকে তাকে উচ্ছেদ, এটা সভ্যতা হতে পারে না। আমার ক্ষমতা থাকলে সব দেশের সব সীমান্তই উধাও করে দিতাম। পৃথিবীতে মানুষের তৈরি করা কোনাে সীমান্ত থাকবে না। ‘ ইস! কী ভালােই না হত তাহলে! আমি ফ্রান্স ইতালি রােমের রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে ঘুরে ওদের স্ক্যাল্পচার পেন্টিংগুলাে দেখতাম। একটা হাসিমুখের স্মাইলি পাঠায় আলাদিন। আলাদিন লিখল, “ কিছু মনে না করলে একটা কথা বলব? ‘মনে না করার মতাে হলে নিশ্চয় করব না। বলাে…

আই লভ ইয়ু। উইল ইয়ু ম্যারি মি?” হােয়াট! জিনাত চমকে উঠল আলাদিনের প্রস্তাবে। ‘অ্যাকচুয়ালি, আমি মনে মনে ভালােবেসে ফেলেছি তােমাকে। আমি নেক্সট ইয়ারে দেশে ফিরছি। তােমার পেন্টিং আমি দেখেছি। “থ্যাঙ্কস ফর ইয়াের কমপ্লিমেন্ট, আলাদিন। বাট আয়াম এনগেজড। হি ইজ শায়ন। সে আমাকে খুব ভালােবাসে। আমিও। ‘ওহ! সরি। এক্সট্রিমলি সরি, জিনাত। ‘সরির কিছু নেই, আলাদিন। তুমি আমার খুব ভালাে বন্ধু। ‘ সিওর জিনাত। তুমি হার্টফিল করনি তাে।

না না, একদমই না। আরে তুমি তাে আমাকে ভালােবাসতে চেয়েছ, খুন করতে তাে চাওনি!’ আর খানিক বকবক করার পর ফেসবুক থেকে লগ আউট করল জিনাত। ঘুমে ভারী হয়ে এল চোখ।

চলবে……

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes