jamdani

মধুমাসে ত্বকের পরিচর্যায় স্নান (পর্ব-১)

নখ থেকে নাক, সবকিছুরই সঠিক যত্ন দরকার এই মধুমাসে। সঠিক নিয়মে পেডিকিওর, ম্যানিকিওর, ফুল বডি স্ক্রাবিং, ক্লিনজিং, টোনিং, পলিশিং ইত্যাদি হল সম্পূর্ণ দেহের লাবণ্য রক্ষার প্রথম কথা। এছাড়াও নিয়মিত অয়েল ম্যাসাজ, সঠিক পদ্ধতিতে স্নান, বডি প্যাক লাগানো- এগুলিও ভীষণ জরুরি। বেশিরভাগ মানুষই চুল বা ত্বকের যতটা যত্ন নেন, তার সিকিভাগও যত্ন নেন না ঘাড়, গলা, কুনুই, গোড়ালি ও দেহের অন্যান্য অংশের। পোশাকে ঢাকা থাকে বলে শরীরের এই অংশগুলির প্রতি আমরা কিছুটা উদাসীন থাকি। অথচ পরবর্তীকালে নিজেদেরই আত্মবিশ্বাসে ঘাটতি দেখা যায়। তাই খুব যত্ন করে খুঁটিয়ে জেনে নেওয়া দরকার প্রতিটি অঙ্গের রূপ পরিচর্যা। আর অঙ্গ পরিচর্যার প্রথম ধাপই হল স্নান। এ বিষয়ে আলোচনা করা যাক বিস্তারিতভাবে।

শরীরী আবেদনে স্নানঃ

পার্টনারের সবটুকু আদর ধারণ করার আগে নিজেকে প্রস্তুক করুন পরিপূর্ণ স্নানে। ভালোভাবে স্নান করলে দেহ ঠাণ্ডা ও কোমল থাকে বটেই, তরতাজা দেহ আনে চনমনে স্ফূর্তি। সারাদিনের অবসাদ এবং ক্লান্তি কেটে যায় আরামের স্নানে।

  • রোদ থেকে ফিরে সঙ্গে সঙ্গে স্নান করবেন না। কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিয়ে তবেই স্নান করুন।
  • সাবানের বদলে ব্যবহার করুন বডি-ওয়াশ।
  • সপ্তাহে দুই-তিনদিন বডি স্ক্রাবিং করুন।

শুষ্ক ত্বকের জন্য

টক দইতে চিনি মিশিয়ে স্নানের আগে সারা শরীরে ঘষুন। এর পর স্নান করুন।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য

পরিমাণ মতো গোলাপ জল, বেসন ও চিনি মিশিয়ে ঘষুন, চিনি গলে যাওয়া পর্যন্ত। এর পর স্নান করে নিন।

সাধারণ ত্বকের জন্য

ডালের গুঁড়ো ও দুধ মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি বডি স্ক্রাবার হিসেবে ব্যবহার করুন। স্নানের আগে মধু, দুধের সর ও অল্প বেসন মিশিয়ে মাখলেও ত্বক ভালো থাকবে।

  • স্নানের জলে কয়েক ফোঁটা কোলন মিশিয়ে নিলে তরতাজা লাগবে।
  • ফ্রেশ বাথ নিতে গেলে স্নানের জলে অবশ্যই মিশিয়ে নেবেন অ্যারোমেটিক বাথ-সল্ট। এতে সারাদিন তরতাজা ভাব বজায় থাকবে তো বটেই, সঙ্গে ঘামের দুর্গন্ধও দূর হবে।
  • শরীর ঠাণ্ডা রাখতে স্নানের জলে চন্দনবাটা মিশিয়ে নিতে পারেন।
  • জলে মধু বা বাদামবাটা মিশিয়ে স্নান করলে শুকনো ত্বক নিমেষে পুনরুজ্জীবিত হয়।

  

 

 

Trending


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes