jamdani

বাড়িতে বসেই কীভাবে নেবেন চুলের যত্ন?

শীতকাল মানেই রাফ চুল, একটা রুক্ষ শুষ্ক ব্যাপার। যার থেকে রেহাই পাওয়া বেশ সহজ। কম সময়ের জন্য অনেকেই চুলের বিশেষ যত্ন নেন না। তাঁদের জন্য রইল কয়েকটা টিপস।

  • শীতকালে গরম তেল মালিশ করলে চুল পুষ্টি পায়। এর সঙ্গে আপনি মিশিয়ে নিতে পারেন ডিম এবং মধু। স্নানের আগে ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে চুলে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। এরপর ভালো করে শ্যাম্পু করে নিন।
  • দু-চামচ ফ্রেশ অ্যালোভেরা জেল, এক-চামচ মধু এবং তিন চামচ নারকেল তেল মিশিকে একটা মাস্ক তৈরি করুন। আধ ঘন্টা মতো রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে চুল বাউন্সি হবে।
  • একটা কলা চটকে নিন। এবার তাতে মিশিয়ে দিন একটি ডিম, তিন চামচ দুধ, তিন চামচ মধু এবং পাঁচ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল। এবার সবগুলো ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে স্ক্যাল্পে লাগিয়ে রাখুন। আধ ঘন্টা পর ধুয়ে ফেলুন।
  • শীতকালে খুব ঘন ঘন শ্যাম্পু করবেন না। সপ্তাহে তিনদিন শ্যাম্পু করলেই যথেষ্ট।
  • শ্যাম্পু করার সময় কয়েক ফোঁটা তেল মিশিয়ে নিন। এতে চুল হবে সিল্কি।
  • রাতে ঘুমনোর আগে সামান্য অলিভ অয়েল হাতের তালুতে ঘষে নিয়ে পুরো চুলে এবং স্ক্যাল্পে হালকা হাতে মাসাজ করুন।
  • খুশকির সমস্যা থাকলে তিন টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে এক টেবিল চামচ নারকেল তেল বা অলিভ অয়েল এবং কয়েক ফোঁটা পাতিলেবুর রস মিশিয়ে চুলে এবং মাথার ত্বকে লাগাতে পারেন। ৩০ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে নিন।
  • সপ্তাহে দু-তিনবার ফিশ অয়েল ক্যাপসুল বা ভিটামিন-ই ক্যাপসুল খেতে পারেন। এতে চুল ভাল থাকবে।
  • শীতকালে শ্যাম্পু করলে কন্ডিশনার লাগাতে ভুলবেন না। কলা ও মধুর প্যাক লাগাতে পারেন। তবে অবশ্যই স্ক্যাল্প বাঁচিয়ে।
  • কালার, কার্লিং, প্রেসিং-এর মতো কোনও ট্রিটমেন্টশীতকালে পার্লারে না করানোই ভাল। একান্তই প্রয়োজন হলে হার্বাল কোনও ট্রিটমেন্ট করাতে পারেন।

Trending


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes