jamdani

ডায়েট কন্ট্রোলের ৫ টি টিপস

অনেকেই ওজন সমস্যায় ভুগছেন। কিন্ত কিভাবে শরীরের বাড়তি ওজন কমাবেন বুঝতে পারছেন না। আসলে কিভাবে ডায়েট করলে ওজন কমে সেই সম্পর্কেও ভাল ধারণা নেই অনেকেরই। সাধারণত যারা ডায়েট করে ওজন কমানোর কথা ভাবছেন তারা বেছে নিতে পারেন নিম্নলিখিত কিছু টিপস। তাহলে আসুন দেখে নাওয়া যাক ডায়েট করার কিছু টিপস।

খাবার কম খান, কিন্ত উপোস করবেন না 

সাধারণত ডায়েট কন্ট্রোল করতে গিয়ে দেখা যায় অনেকে প্রথমেই ব্যাপকভাবে খাওয়া কমিয়ে দেয়। এতে করে শরীরের পরিপাকতন্ত্রের স্বাভাবিক কর্মপ্রক্রিয়া ধ্বংস হয়ে যায়। সাধারণত প্রতিদিন ১ হাজার ক্যালোরির কম পরিমাণ খাবার খেলে আপনার দেহ খাদ্য জমা করে রাখতে শুরু করে এবং উপোস থাকার জন্য পরিপাকতন্ত্রের কর্মপ্রক্রিয়ার গতি অনেকাংশে কমিয়ে দেয়। যার ফলে দেখা যায় খাওয়া কমিয়ে দিলে প্রথমদিকে হয়তো আপনার ওজন কিছুটা কমে আসে। কিন্ত এরপর পুনরায় বেশি পরিমাণে ক্যালোরি গ্রহণ শুরু করলে ওজন ফের বেড়ে যাবে। তারচেয়ে বরং আপনি কম ক্যালোরিযুক্ত স্বাস্থ্যকর খাবার-দাবার খান এতে করে আপনি নিজেকে  প্রাণবন্ত রাখতে পারবেন। তাই চেষ্টা করুন খাবার কম খেতে কিন্ত উপোস করতে যাবেন না।

শারীরিক পরিশ্রম করুন 

সাধারণত খাবার যারা বেশি একটা নিয়ন্ত্রণ করতে চান না বা খাবার খেয়েও শরীর সুস্থ রাখতে চান তাদের সুস্বাস্থ্যের জন্য সবচেয়ে সহজ সমাধান হলো বেশি করে শারীরিক পরিশ্রম করা। এতে করে আপনার দেহে খাবারের সঙ্গে ঢোকা ক্যালরি নষ্টো হবে। আপনি প্রচুর পরিমাণে খাবার খাচ্ছেন কিন্ত শারীরিক পরিশ্রম করার কারণে আপনার ওজন বাড়বে না বরং আপনি আরও বেশি সুস্থ থাকবেন।

সঠিক খাবার খেতে চেষ্টা করুন

 

আপনার পরিপাকতন্ত্রও ঠিকমতো কাজ করতে প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদানসমৃদ্ধ খাবার খাওয়া খুবই জরুরী। এজন্য আপনি এখন থেকে প্রোটিন ও ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার-দাবার বেশি করে খান। এতে করে আপনার প্রোটিনে মাংসপেশি সুগঠিত হয়। ক্যালসিয়ামও আমাদের পেটের চর্বি নষ্টো করতে খুবই কার্যকর। তাই খাবারটা সঠিক ভাবে খাওয়ার চেষ্টা করুন।

অসময়ে খিদে পেলে 

আপনি ডায়েট করছেন কিন্ত তার পরও দেখা যায় কিছু সময় পর পর খিদে পাচ্ছে। তাই তখন হালকা খাবার খেয়ে নিতে পারেন। আবার দুপুর ও রাতের খাবারের মাঝামাঝি সময়ে খুব বেশি খিদে পেলে শুকনো রুটি বা টোস্ট বিস্কুট খান। ফল, সবজি বা এক বাটি মুড়ি খেতে পারেন। এই খাবারগুলো আপনার ডায়েট এর জন্য খুবই সাহায্যকরি। রাতে কার্বোহাইড্রেট-জাতীয় খাবার কম খাবেন।

বাড়িতেই ব্যায়াম 

আপনি চাইলে বাড়িতে বসে কিছু ফ্রি-হ্যান্ড ব্যায়াম করতে পারেন। এতে আপনার সময় একেবারেই কম লাগে। এতে  আপনি ফিট থাকতে পারবেন এবং আপনার শরীরে অতিরিক্ত মেদ জমা হবে না। আপনি যত সময় বাড়িতে থাকেন, সে সময় শুয়ে-বসে না থেকে হাঁটাচলা করুন। আপনার বাড়িতে লিফট থাকলেও সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করুন। বাড়ির টুকিটাকি কাজে করুন। এতে কিছুটা পরিশ্রম হবে, কিন্ত আপনার শরীরের বাড়তি ওজন আস্তে আস্তে হ্রাস পেতে থাকবে।

 

 

Trending

Most Popular


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes