jamdani

আইল্যাশ ভালো রাখবেন কী করে?

আর্টিফিশিয়াল আইল্যাশ অথবা ভলিউম মাসকারা যতই বাড়িয়ে দিক চোখের মাদকতা, ব্যস্তদিনের রোজনামচায় ভরসা রাখতেই হয় ন্যাচারাল লুকের ওপর। এর জন্য দীঘল চোখ থাকলেই শুধু হবে না, চাই ন্যাচারাল থিক আইল্যাশ। তা হলে হালকা লাইনার অথবা কোহল পেনসিল দিয়েই আপনি ক্রিয়েট করতে পারেন পারফেক্ট আই এক্সপ্রেশন। জেনে নিন আইল্যাশ ঘন করার জন্য কয়েকটি ঘরোয়া উপটানের কথা।
ক্যাস্টর অয়েল- সোনার কাঠি-রূপোর কাঠি ছোঁয়াতেই ঘুমন্ত রাজকন্যা বড় বড় আখিপল্লব মেলে উঠে বসল সোনার পালঙ্কে। চোখে তার অসীম বিস্ময়— এমন রূপকথার মতো সুন্দর আইল্যাশ পেতে চাইলে আপনি সাহায্য নিতে পারেন ক্যাস্টর অয়েলের। ট্র্যাডিশনালি হেয়ার রিগ্রোথ ট্রিটমেন্টের জন্য এর ব্যবহার করা হয়। কয়েক ফোটা ক্যাস্টর অয়েল মিশিয়ে নিন অলিভ অয়েলের সঙ্গে। আইল্যাশের ওপর অ্যাপ্লাই করুন। লাগানোর কয়েক ঘন্টা পর ধুয়ে নিন অথবা সারারাত ধরেও লাগিয়ে রাখতে পারেন। নিয়মিত ব্যবহার করলে আইল্যাশের গ্রোথ পোটেনশিয়াল রেস্টোরড হবে। আইল্যাশ ঘন এবং বড় হয়ে উঠবে।
গ্রিন টি- ‘পাখির নীড়ের মতো চোখ তুলে চাইতে হলে ঘন আইল্যাশ থাকতেই হবে। এক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন গ্রিন টি। স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে উপকারী এই সবুজ চা আপনার বিউটি রুটিনে অ্যাড করলে নিয়ে আসবে আশ্চর্য পরিবর্তন। পাত্রে গরম জল নিয়ে তাতে গ্রিন টি-এর পাতা অথবা গ্রিন টি ব্যাগ যোগ করুন। জল ঠান্ডা হয়ে যাওয়ার পর আইল্যাশে অ্যাপ্লাই করুন এবং কয়েক ঘন্টা থাকতে দিন। ঠান্ডা জলে চোখ ধুয়ে ফেলুন।
অ্যালোভেরা জেল- অ্যালোভেরা তার স্বাভাবিক হার্বাল গুণাগুণের জন্য বিউটি প্রোডাক্টে সর্বাধিক ব্যবহৃত হয়। খানিকটা টাটকা অ্যালোভেরা জেল আপনার আইল্যাশ এবং আই ব্রো তে অ্যাপ্লাই করুন এবং শুকিয়ে যাওয়া অবধি অপেক্ষা করুন। জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি চোখের চারপাশের ডার্ক সার্কল কমাতেও সাহায্য করবে। তবে অ্যাপ্লাই করার পর চোখ বন্ধ করে রাখুন। অনেকের ক্ষেত্রে চোখ সেনসেটিভ হয়ে ওঠার সম্ভাবনা থাকে।

Trending


Would you like to receive notifications on latest updates? No Yes